Header Ads

করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়াল, মৃত ৫১ হাজারের এর চেয়ে বেশি

চলমান বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত বিশ্বের বেশির ভাগ দেশগুলতে। দ্রুত বেড়ে চলেছে করোনাভাইরাসে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা। গত ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে ছড়িয়ে পড়ে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস। এখন তা ১৮০ দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। বিশ্বে সব মিলিয়ে আজ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১০ লাখ ছাড়িয়ে গেল।

যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির এর তথ্য অনুযায়ী, ২ এপ্রিল পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে ১৮১ টি দেশে করোনা সংক্রমিত হয়েছে ১০ লাখ ২ হাজার ১৫৯ ব্যক্তির মধ্যে। বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ৫১ হাজার ৪৮৫ এর মত।


জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কেন্দ্রস্থল এখন ইউরোপ। যদিও ধীরে ধীরে সেই কেন্দ্রস্থল হয়ে উঠছে যুক্তরাষ্ট্র। মৃতের সংখ্যার দিক থেকে প্রথম দুটি দেশই ইউরোপের। সবার ওপরে আছে ইতালি, দেশটিতে এখন পর্যন্ত মারা গেছে ১৩ হাজার ৯১৫ জন। প্রাণহানিতে দ্বিতীয় স্থানে আছে স্পেন, ১০ হাজার ৯৬ জন। এরপর রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটি বলছে, দেশটিতে মৃতের সংখ্যা পাঁচ হাজার ৬৪৮ জন। চতুর্থ স্থানে থাকা ফ্রান্সে মারা গেছে ৪ হাজার ৫০৩ জন। পঞ্চম স্থানে রয়েছে করোনার উৎপত্তিস্থল চীন। দেশটিতে এখন করোনা নিয়ন্ত্রণে থাকলেও প্রাণ গেছে পর্যন্ত ৩ হাজার ৩২২ জনের। মৃতের সংখ্যায় ষষ্ঠ স্থানে থাকার ইরানে মারা গেছেন ৩ হাজার ১৬০ জন।

Lifebuoy Soap
জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্য অনুযায়ী, করোনাভাইরাসে রোগী শনাক্তের সংখ্যার দিকে দিয়ে এখন শীর্ষস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছে দুই লাখ ৩৬ হাজার ৩৩৯জন। এরপরই আছে ইতালি, এক লাখ ১৫ হাজার ২৪২ জন। রোগী শনাক্তের দিক থেকে এর পরে আছে স্পেন, এক লাখ ১০ হাজার ২৩৮। এরপর যথাক্রমে অবস্থান জার্মানি (৮৪, ৬০০), চীনে (৮২,৪৩২), ও ফ্রান্স (৫৯,৯২৯)। ইরানে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার ৪৬৮ জন।

সুস্থ হওয়ার সংখ্যায় সবার ওপরে রয়েছে চীন। বিশ্বজুড়ে দুই লাখ ৮ হাজার ৯৪৯ জন সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে চীনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭৬ হাজারেরও বেশি মানুষ। স্পেনে সুস্থ হয়েছেন সাড়ে ২৬ হাজারের বেশি মানুষ। জার্মানিতে ২১ হাজার ৪০০ জন, ইতালিতে ১৮ হাজার ২৭১ ও ইরানে ১৬ হাজার ৭১১ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) তথ্য অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দেশে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৬। দেশে গত ৮ মার্চ দেশে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হওয়ার বিষয়টি ঘোষণা দেওয়া হয়। ১৮ মার্চ দেশে করোনাভাইরাসে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এখন পর্যন্ত দেশে ছয়জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন অনেকে।তাই এথেকে আমাদেরকে নিরাপদ দুরুতে বসবাস করা উচিত।

No comments

Powered by Blogger.